বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন

প্র : ফররুখ আহমদের জন্ম তারিখ কত?
উ : ১০ই জুন, ১৯১৮।
প্র : তিনি কোথায় জন্মগ্রহণ করেন?
উ : মাঝআইল গ্রাম, যশোর।
প্র : তিনি মূলত কী ছিলেন?
উ : ইসলামি স্বাতন্ত্র্যবাদী কবি।
প্র : তাঁর চিত কবিতায় কী কী উজ্জ্বলভাবে প্রস্ফুটিত হয়েছে?
উ : পাকিস্তানবাদ, ইসলামি আদর্শ এবং আরব-ইরানের ঐতিহ্য।
প্র : তাঁর রচিত কবিতা কেন বিশিষ্ট?
উ : আরবি-পারসি শব্দের প্রয়োগ নৈপুণ্য, বিষয়বস্তু ও আঙ্গিকের অভিনবত্বে।
প্র : তাঁর রচিত কাহিনিকাব্যের নাম কী?
উ : হাতেমতায়ী (১৯৬৬)।
প্র : তিনি তাঁর রচিত হাতেমতায়ী গ্রন্থের জন্যে কী পুরস্কার লাভ করেন?
উ : আদমজি পুরস্কার (১৯৬৬)।
প্র : তিনি ‘পাখির বাসা’ গ্রন্থের জন্যে কী পুরস্কার লাভ করেন?
উ : ইউনেস্কো (১৯৬৬)।
প্র : তিনি আর কী কী পুরস্কারে ভূষিত হন?
উ : বাংলা একাডেমী পুরস্কার, একুশে পদক।
প্র : তাঁর রচিত শ্রেষ্ঠ কাব্যগ্রন্থের নাম কী?
উ : সাত সাগরের মাঝি (১৯৪৪)।
প্র : ‘সাত সাগরের মাঝি’ গ্রন্থের পরিচয় দাও।
উ : বাংলাদেশের বাংলা কবিতার ধারায় চল্লিশের দশকের কবি ফররুখ আহমদের প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ ‘সাত সাগরের মাঝি’ (১৯৪৪)। এই কাব্যগ্রন্থে মোট উনিশটি কবিতা স্থান পেয়েছে। সাত সাগরের মাঝি নামের একটি কবিতা আছে গ্রন্থের সর্বশেষে। অন্যান্য উল্লেখযোগ্য কবিতা : সিন্দবাদ, পাঞ্জেরি, লাশ, আউলাদ, দরিয়ার শেষরাত্রি ইত্যাদি। এ গ্র্েথর কবিতাগুলি ১৯৪৩-’৪৪ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে রচিত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধোত্তর বিরূপ সমাজের ছবি যেমন লাশ, আউলাদ কবিতায় পাওয়া যাবে। তবে মূলত মুসলমানদের জাগরণের লক্ষ্যে তিনি এ গ্রন্থের কবিতাগুলো লিখেছেন। সেজন্যে কবি ত্যাগ করেছেন বঙ্গীয় শব্দ ও অনুষঙ্গ, গ্রহণ করেছেন আরব্য উপন্যাস, ইরান-আরবের সংস্কৃতি ও পুরাণ কথা। বাংলা প্রচলিত শব্দ পরিত্যাগ করে একাব্যে কবি বহু অপ্রচলিত আরবি-পারসি শব্দ গ্রহণ করেছেন। অনুষঙ্গের ক্ষেত্রেও এসেছে সমুদ্র বারংবার, এসছে ঈগল পাখি, নারঙ্গির বনের সবুজ পাতা ইত্যাদি। এ কাব্যগ্রন্থ পাঠ করলে এই ধারণা হয়, কবি জন্মেছেন বাংলায়, কিন্তু তাঁর মন পড়ে আছে আরব-ইরানের মরুভূমিতে। এই কাব্যগ্রন্থের সব শব্দের অর্থ কোন বাঙালি পাঠকই বুঝবেন না। তাঁকে ‘আরবি-পারসি থেকে বাংলা’ অভিধান কাছে নিয়ে বসতে হবে। তবে কবিশক্তি থাকায় চমৎকার চিত্রকল্প, প্রতীক সৃজন ও কবিভাষা নির্মাণ ফররুখ আহমদ করতে পেরেছেন। তাই যথাযথ অর্থ না বুঝেও ‘আকিক বিছানো পথ’ বা ‘শিলাদৃঢ় আবলুস’ বা ‘দরিয়ার হাম্মাম’ শব্দবন্ধগুলো পড়তে আমাদের মন্দ লাগে না।
প্র : তাঁর রচিত কাব্যনাট্যের নাম কী?
উ : নৌফেল ও হাতেম (১৯৬১)।
প্র : তাঁর রচিত সনেট সংকলনের নাম কী?
উ : মুহূর্তের কবিতা (১৯৬৩)।
প্র : তার রচিত শিশুতোষ গ্রন্থের নাম কী?
উ : পাখির বাসা (১৯৬৫)।
প্র : পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা প্রশ্নে তাঁর অবস্থান কী?
উ : বাংলা ভাষার পক্ষে।
প্র : পাকিস্তান বেতার-টিভিতে রবীন্দ্রসঙ্গীত প্রচার বন্ধের সিদ্ধান্তে তাঁর অবস্থান কী?
উ : তিনি বন্ধ রাখার পক্ষে ছিলেন।
প্র : বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে তাঁর ভূমিকা কী?
উ : মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে ও পাকিস্তানের অখন্ডতার পক্ষে অবস্থান।
প্র : তাঁর মৃত্যু তারিখ কত?
উ : ১৯শে অক্টোবর, ১৯৭৪।


দয়া করে পোস্টটি শেয়ার করুন...

© BengaliGrammar.Com
Maintenance by BengaliGrammar.Com