সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন

বাগধারা Fiddling বা বাগবিধি Buggy

প্রতিটি ভাষায় এমন বহু শব্দ বা বাক্যাংশ আছে, যার মধ্যে অর্থগত বা ব্যবহারগত বৈশিষ্ট্য লক্ষ করা যায়। ভাষার এই জাতীয় বৈশিষ্ট্যকে বলে বাগধারা (Fiddling) বা বাগবিধি (Buggy)। ইংরেজি Idiom শব্দের বাংলা প্রতিশব্দ হলো বাগধারা। বাংলা ভাষায় বাগধারা বাক্যের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। এ লক্ষ্যে একাধিক নির্দিষ্ট পদ বাক্যে ব্যবহৃত হয়ে সাধারণ অর্থের বাইরে বিশিষ্ট অর্থ প্রকাশ করে- এই পদগুলোকে বাগধারা বা বাগবিধি বলে। এ ধরনের পদের ব্যবহারে বক্তব্য বিশেষভাবে পরিস্ফুট হয় এবং অর্থ প্রকাশে ব্যঞ্জনা আসে। অন্যভাবে বলা যায়- আক্ষরিক অর্থ ছাপিয়ে যখন কোনো শব্দ বা শব্দগুচ্ছ বিশেষ অর্থ বোঝায় তা-ই হলো বাগধারা বা বাগবিধি। বাগধারা বাংলা ভাষায় বিশিষ্ট সম্পদ। সময়ের বিবর্তনে মানুষ তার ভাষা কিংবা ভাবকে অন্যের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে এবং বক্তব্যকে হৃদয়গ্রাহী ও ভাষাকে মাধুর্যময় করতে বাগধারা বা বাগবিধির ব্যবহার করছে। বাংলা ভাষার নিজস্ব সম্পদ বাগধারা ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব অপরিসীম। সংক্ষেপে এবং সুন্দর করে অনেক ক্ষেত্রে ছন্দ মিল রেখে উপমা ব্যবহার করে বাগধারা বা প্রবাদের মাধ্যমে সমাজের কোনো মূল্যবান অভিজ্ঞতা প্রকাশ করা যায়। আমাদের নিত্যদিনের কথাবার্তায় প্রবাদ-প্রবচন ভাষার অলঙ্কার হিসেবে কাজ করে। বাগধারায় অনেক বড় গভীর কথাও অল্প পরিসরে সুন্দরভাবে প্রকাশ করা যায়। বাগধারার ব্যবহারে বক্তব্য প্রকাশিত হলে অর্থ প্রকাশে বেশি সার্থকতা দেখা দেয়। বাগধারা হিসেবে ব্যবহৃত শব্দগুচ্ছ সাধারণ অর্থ অতিক্রম করে বক্তব্য বিষয়কে অনেক বেশি তাৎপর্যমন্ডিত করে তোলে। বাগধারা ভাষার সৌন্দর্য বাড়ায়, অর্থগত দিক থেকে স্পষ্টতা এবং ভাবে ব্যঞ্জনা আনে এবং কথাকে শ্রুতিমাধুর্য দান করে। তাই বাংলা ভাষায় বাগধারা বা বাগবিধির প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। বাংলা ভাষাতেও বহু বাগধারা আছে। নিচে তেমন কিছু বাগধারার বাক্যসহ উদাহরণ দেওয়া হলো :


পোস্টটি শেয়ার করুন...
© BengaliGrammar.Com
Maintenance by BengaliGrammar.Com