শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৬:০২ পূর্বাহ্ন

হ দিয়ে বাগধারা ও বাক্য প্রয়োগ তৈরি

হাটে হাঁড়ি ভাঙ্গা (গোপন কিছু ফাঁস করা) : বেশি বাড়াবাড়ি হলে হাটে হাঁড়ি ভেঙ্গে দেবো।
হাটে হাঁড়ি ভাঙা (গোপন কথা ফাঁস করা): খবরদার, আমার পিছে লেগো না; যদি লাগ তাহলে হাটে হাঁড়ি ভেঙে দেব কিন্তু বলে দিচ্ছি।
হাত ঝাড়া দিলে পর্বত (ধনাধিক্য): কিছু সাহায্য দাও বাবা, তোমার তো হাত ঝাড়া দিলেই পর্বত।
হাত টান (চুরির অভ্যাস) : অভাবে পড়ে অনেকেই হাত টানের অভ্যাসে জড়িয়ে পড়ে।
হাত দিয়ে হাতী ঠেলা (অসম্ভবকে সম্ভবপর করতে চেষ্টা করা): হাত দিয়ে হাতী ঠেলবার মত দুরাশা আমি করি না।
হাত ধরা (অনুরোধ করা) : আজিজ বড় সাহেবের হাত ধরে ক্ষমা চেয়ে চাকরি বাঁচাল।
হাত ধরা (বশীভূত): হাত ধরা লোক হলেই বা কী, এমন কাজ আমাকে দিয়ে হবে না।
হাত পাকানো (দক্ষতা): নকল বিদ্যায় বেশত হাত পাকিয়েছে বটে।
হাত পাতা (ভিক্ষা করা) : আল্লাহ ছাড়া আর কারো কাছে হাত পাতা উচিত নয়।
হাতির খোরাক (বেশি খাওয়া) : চার জনের ভাত একজনেই খেয়ে ফেলল, এ দেখছি হাতির খোরাক।
হাতির খোরাপ (বেশি খোরাক): এত বড় সংসারের হাতির খোরাক যোগানো আমার পক্ষে অসম্ভব।
হাতির পাঁচ পা দেখা (দুঃসাহসী হওয়া): আমার ছেলে তুমি, তুমি আমাকে মান না, হাতির পাঁচ পা দেখেছ।
হাতে কলমে (প্রত্যক্ষ জ্ঞান) : অনীক মাহমুদ স্যার আমাদের হাতে কলমে শিক্ষা দিয়েছেন।
হাতে জল না গলা (অতিশয় কৃপণ): মোড়লের কাছে গিয়ে লাভ নেই ভাই, তার হাতে জল গলবে না।
হাতে পাঁজি মঙ্গলবার (জানার সুযোগ থাকলেও বৃথা তর্ক): বৃথা তর্কাতর্কি না করে হাতে পাঁজি মঙ্গলবার পুস্তকখানি খুললেই তো সব পরিষ্কার হয়ে যাবে।
হাতে হাতে (সঙ্গে সঙ্গে) : মিল্টনকে টাকাটা হাতে হাতে দিও।
হাতে-কলমে (যথার্থ কাজ করে): হাতে কলমে শিক্ষাই তো প্রকৃত শিক্ষা।
হাতেখড়ি (আরম্ভ) : করিম স্যারের কাছে আমার লেখাপড়ার হাতেখড়ি।
হাতেনাতে (প্রমাণসহ) : চুরি করতে এসে চোরটা হাতেনাতে ধরা পড়েছে।
হাতেনাতে ধরা (অপরাধ করার সময় ধরা) : রাঘব বোয়ালদের জন্য ঘুষখোরেরা হাতেনাতে ধরা পড়ে এবং পরে বেচে যায়।
হাতের পাঁচ (শেষ সম্বল) : একশ টাকাই হাতের পাঁচ ছিল, তাও আজ খরচ হয়ে গলে।
হাতের পাঁচ (শেষ সম্বল): হাতের পাঁচ ঐ পনরটি টাকা ছিল তাও চোরা বাজারে কাপড় আনতে শেষ হল।
হাতের লক্ষ্মী পায়ে ঠেলা (সুযোগ হেলায় হারানো): দুধে-ভাতে চাকরিটি নিলে না, হাতে লক্ষ্মী পায়ে ঠেললে, এখন পস্তাও।
হাতের লক্ষ্মী পায়ে ঠেলা (হেলায় সুযোগ নষ্ট করা) : হাতের লক্ষ্মী পায়ে ঠেলা ঠিক নয়।
হাতটান (চুরির অভ্যাস): ছোকরা চাকরটির একটু হাতটান আছে ঘরের জিনিসপত্র সাবধানে রেখো।
হাতধুয়ে বসা (নিশ্চিন্ত বোধ করা) : এভাবে হাত ধুয়ে বসে থাকলে সংসার চলবে কি করে?
হা-পিত্যেশ করা (ব্যাকুলভাবে আশা করা) : বাবার সম্পত্তির লোভে কামাল হা-পিত্যেশ করে বসে আছে।
হাল ছেড়ে দেয়া (হতাশ হয়ে চেষ্টা থেকে বিরত) : আর যাই হোক হাল ছেড়ে দিও না।
হালে পানি পাওয়া (উত্রিয়ে যাওয়া) : বেশ অর্থাভাবে ছিলাম, টাকা ক’টা পেয়ে আমি যেন হালে পানি পেলাম।
হালে পানি পায় না (অকৃতকার্য হওয়া): বড় বড় মহারথী হালে পানি পায় না আর উনি দেবেন সমস্যা সমাধান করে, হাসালে ভায়া হাসালে।
হালছাড়া (হতাশ হওয়া): পরীক্ষায় পাসের আশা নেই দেখে আবুল হোসেন হাল ছেড়ে দিয়েছে।
হাড় জুড়ানো (শান্তি পাওয়া): শেষমেষ মরে গিয়ে বৃদ্ধ গাঁ শুদ্ধ মানুষের হাড় জুড়িয়েছে।
হাড়ির হাল (মলিন): রোদে পানিতে ভিজে চেহারাটি করেছ হাড়ির হাল।
হাড়ে দূর্বা গজানো (অলস) : হাড়ে দূর্বা গজানো লোকদের দিয়ে দেশের মঙ্গল চিন্তা করা নিরর্থক।
হাড়ে দূর্বা গজানো (আলসেমির লক্ষণ): কিহে আসিফ, কাজকর্ম কিছু করো না নাকি, বসে থাকতে থাকতে যে হাড়ে দূর্বা গজাবে।
হাড়ে বাতাস লাগা (শান্তি পাওয়া): ডাকাত দলটি ধরা পড়েছে, সবার হাড়ে বাতাস লেগেছে।
হাড়ে হাড়ে (সম্পূর্ণরূপে) : লেখাপড়া না করলে একদিন হাড়ে হাড়ে টের পাবে।
হাড়ে হাড়ে চেনা (গভীরভাবে চেনা) : বিপদে পড়ে বন্ধুদেরকে হাড়ে হাড়ে চেনা যায়।
হাড়ে হাড়ে চেনা (মর্মান্তিকভাবে পরিচয় জানা): অফিসের বড়কর্তাকে সকলে হাড়ে হাড়ে চিনে, কেননা তাঁর দাপটে তারা অস্থির থাকে।
হাড়-হাভাতে (হতভাগ্য) : হাড়-হাভাতে ছেলেটা বাপের বিশাল সম্পদ ধ্বংস করে পথে বসেছে।
হাড়-হাভাতে (হতভাগ্য): যোগ্য পিতার পুত্র যদি এমন হাড়-হাভাতে হয়, তবে ইহা বড়ই দুঃখের বিষয়।
হাড়হদ্দ (নাড়ী নক্ষত্র): কালকের ছোকরা আলতাফ আমারই উপর চোখ রাঙ্গায় আমি ওর হাড়হদ্দ জানি।
হিতে বিপরীত (উল্টা ফল) : ছেলেমেয়েদের খুব বেশি স্বাধীনতা দিলে হিতে বিপরীত হয়।
হিতে বিপরীত (উল্টা ফল): ছেলেটাকে উপদেশ দেওয়ায় আরো উচ্ছৃঙ্খল হয়ে উঠল, এ যে হিতে বিপরীত হল।
হিমসিম খাওয়া (ক্লেশ পাওয়া) : এত সামান্য পড়াশুনা করেই হিমসিম খাচ্ছ।
হীরের টুকরো (গৌরবময়) : এ রকম হীরের টুকরো ছেলেরাই তো দেশের সম্পদ।
হীরের টুকরো (বুদ্ধিমান ও সৎ): আবদুল কাইয়ুম সাহেবের ছেলেটি হীরের টুকরো, সে বংশের মুখোজ্জ্বল করেছে।
হেস্তনেস্ত (মীমাংসা) : আসাদ ব্যাপারটার একটা হেস্তনেস্ত করে দিল।
হ-য-ব-র-ল (এলোমেলো) : খুকু কখনই বইগুলো হ-য-ব-র-ল করে রাখে না।
হ-য-ব-র-ল (বিশৃঙ্খল): যা বলতে চাও তা পরিষ্কার করে বলো; নইলে তোমার ঐ হ-য-ব-র-ল উক্তি কোন কাজেই লাগবে না বাপু।
হদিস পাওয়া (সঠিক সংবাদ পাওয়া) : আজ দু’বছর হয়ে গেল ছেলেটার কোনো হদিস পাচ্ছি না।
হরিলুট (অপচয়) : কোম্পানিতে আগুন লাগায় সবাই হরিলুট শুরু করেছে।
হরিষে বিষাদ (আনন্দে দঃখ): ঘরে লেলিহান অগ্নিশিকার ভিতর হতে শিশু দুটিকে উদ্ধার করা গেলেও উদ্ধারকর্তার মৃত্যুতে হরিষে বিষাদ উপস্থিত হল।
হ্রস্ব-দীর্ঘ-জ্ঞান (সাধারণ জ্ঞান): অকাট মূর্খ বলেই তো তোমার মত হ্রস্ব-দীর্ঘ-জ্ঞানের ছেলের সঙ্গে মেয়ে বিয়ে দিয়েছি, সবই আমার নসিব।
হস্তিমূর্খ (বোকা): তোমার মত হস্তিমূর্খ লোক এমন সাহসের কাজ করতেই পারে না।

তথ্যসূত্র: পুরাতন বইয়ের দোকান/লাইব্রেরি হতে বিভিন্ন লেখকের বাংলা ব্যাকরণ বই সংগ্রহ করে তা এখানে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে।


পোস্টটি শেয়ার করুন...
© BengaliGrammar.Com
Maintenance by BengaliGrammar.Com